Live to die bengaliLive to die bengali page 2

 

মরার জন্য বাঁচা? না, চিরকালের জন্য বাঁচা

বিজ্ঞান বহু বিষয়েই উন্নতিসাধন করেছে, এমনকি মহাকাশ নিয়েও অন্বেষণ করেছে কিন্তু মৃত্যুর বিষয়টি মূলত অনাবিষ্কৃতই থেকে গেছে। স্বল্প সংখ্যক ডাক্তার, গবেষক এবং দার্শনিকগণ যারা মৃত্যুর নিজেরই ঘটনা মৃত্যু বিষয়টি নিয়ে এবং মৃত্যুর পরে কি ঘটতে পারে তাই নিয়ে গবেষণা করেছেন। বিজ্ঞানীরা বিশ্বের কাছে সর্বদাই মানব শরীর সম্বন্ধীয় সত্য এবং এই গ্রহের উপর তার ক্ষুদ্র অস্তিত্ব, পরমাণু সম্পর্কে, এবং প্রাকৃতিক বিপর্যয় সম্পর্কে বিষদে ব্যাখ্যা করেছেন কিন্তু প্রতিটি মানুষের ক্ষেত্রেই যা অবধারিত সেই মৃত্যু নামক এই ভয়ানক পরিণতি সম্পর্কে খুবই কম শেখানো হয়। খুব কম সংখ্যকেরই মৃত্যু সম্পর্কে অধ্যয়ন করার ক্ষমতা বা ইচ্ছা আছে বলে মনে হয়, এবং এখনও অবধি এটি সকলের কাছে অন্ধকারই আছে এবং একইভাবে বিজ্ঞানী ও পণ্ডিতগণ সেই বিভেদটি সম্পর্কে অপরিহরণীয় অপেক্ষায় আছেন। ব্যাথা, ক্রন্দন, অসুস্থতা, আঘাত, ভয়, দুঃখ, ভগ্ন-নিরুদ্বিগ্নতা, হতাশা এবং চাহিদা, এসবেরই আমরা অভিজ্ঞতা অর্জন করি যতক্ষণ পর্যন্ত না আমরা মৃত্যু নিজে এসে আমাদের গলাধঃকরণ করে, আর জীবিতদের পৃথিবীতে ফিরে যেতে সমর্থ হই না। যে মুহূর্তে মানুষ সূর্যালোককে অভিবাদন করতে মাতৃ জঠর থেকে বেরিয়ে আসে, সেই মুহূর্তেই তিনি মৃত্যুর সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে নেন। সেখানে কোনোরকম পছন্দ বা অপছন্দ হতে পারে না। বাইবেল বলেছে, “সকলেই পাপ করেছে এবং ঈশ্বরের মহিমা থেকে বঞ্চিত হয়েছে”। “কারণ পাপ যে মজুরি দেয় সেই মজুরি হল মৃত্যু” (রোমীয়3:23; 6:23)। “মানুষের জন্য একবার মৃত্যু, আর মৃত্যুর পর তার বিচার হয়” (ইব্রীয়9:27)। আমরা প্রত্যেকেই নিশ্চয়ই একদিন মারা যাব; এবং যদি আমরা এই জীবনেই ঈশ্বরের থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাই, আমরা অনন্তকাল ধরে তাঁর কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে থাকব। আমরা চিরকালের জন্য ভালবাসা, আনন্দ, সৌন্দর্য, সত্য, শান্তি, এবং সুখের মতন জীবনের সমস্ত উপহার হারিয়ে ফেলব এবং অনন্তকালের জন্য যন্ত্রণা, অন্ধকার, নিঃসঙ্গতা, লজ্জা এবং খেদের সঙ্গে মৃত্যুর যন্ত্রণা ভোগ করব।

মাত্র একজন ব্যক্তিই একা মৃত্যুর রহস্য উদ্ঘাটন করতে পেরেছিলেন এবং মানবজাতির সামনে প্রকাশ করেছিলেন জীবন এবং অমরত্বের “নতুন এবং জীবন্ত পন্থা” আমাদের পরিত্রাতা যীশু খ্রীষ্ট, “যিনি এসে মৃত্যুকে শক্তিহীন করলেন, ও তাঁর সুসমাচারের মাধ্যমে জীবনের ও অমরতার পথ দেখালেন” (II তীমথিয়1:10)। ইতিহাস তাঁর চারিপাশে আবর্তিত হয় এবং এই বিশ্বে তাঁর জন্ম ইতিহাসকে B.C. এবং A.D. এর মধ্যে বিভক্ত করেছে। এবং আমাদের পাপের কারণে তাঁর মৃত্যুবরণ হিসেবে জীবন ও মৃত্যু তাঁর চারিপাশে আবর্তিত হচ্ছে, তাঁকে সমাহিত করা হয়, এবং পাপ, মৃত্যু, নরক এবং কবরের উপর থেকে জয়যুক্ত হয়ে ঈশ্বরের শক্তি দ্বারা উত্থাপিত হয়েছিল। শিষ্যদের মধ্যের এক মহান বৃন্দ তাঁর পুনরুত্থানের প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন, এবং বিশ্বের লক্ষ্য লক্ষ্য মানুষ আজকে সাক্ষ্য প্রমাণ দেয় যে তিনি বেঁচে আছেন। “আমিই সেই চিরজীবন্ত, আমি মরেছিলাম, আর দেখঃ আমি চিরকাল যুগে যুগে জীবিত আছি! আমেন; এবং মৃত্যু ও পাতালের চাবিগুলি আমি ধরে আছি” (প্রকাশিত বাক্য1:18)।

যীশু নিজেকে ক্রুশে বিদ্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করার সময়েও নম্র রেখেছিলেন। প্রত্যেক মানুষের জন্যই তিনি মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করেছিলেন, “মৃত্যুর মাধ্যমে মৃত্যুর অধিপতি দিয়াবলকে ধ্বংস করতে পারেন; আর যারা মৃত্যুর ভয়ে যাবজ্জীবন দাসত্বে কাটাচ্ছে তাদের মুক্ত করেন” (ইব্রীয়2:9,14,15)।

পৃথিবীতে তাঁর জীবনকালে, যীশু খ্রীষ্ট গভীরভাবে জীবন, মৃত্যু এবং অমরত্ব সম্পর্কে শেখান। তিনি অভিব্যক্ত করেন, যে দুরারোগ্য ব্যাধি নিরাময়, মৃতকে জীবন দান, অন্ধের চক্ষুদান, বধিরকে শ্রবণদান, এবং পঙ্গুকে হাঁটতে সাহায্য করার দ্বারা তিনি নিজেই কেয়ামত এবং জীবন। তিনি ঈশ্বরের উপর নিহিত বিশ্বাসের একটি জীবনের শিক্ষা দিয়েছিলেন এবং আশ্চর্যজনকভাবে সেইসব মানুষদের পার্থিব উপাদানের চাহিদা পূরণ করেছিলেন যারা তাঁর সাহায্য চেয়েছিলেন। সম্পূর্ণ নিশ্চয়তার সাথে তিনি মৃত্যুর পরে জীবন সম্পর্কে শিক্ষাদান করেছিলেন। তিনি স্বেচ্ছায় আমাদের পাপের ভার বহন করেছিলেন এবং ক্রুশের উপর নিজেকে শাস্তিপ্রদান করেছিলেন। তারপর যীশু অবাধে অগ্রসর হয়েছিলেন যাতে আমরা তাঁর ওপর বিশ্বাস রাখতে পারি এবং জানতে পারি যে তিনিই পথ, সত্য আর জীবন।

পথ – যীশু হলেন জীবন্ত পথ যে আপনাকে ঈশ্বরের কাছে নিয়ে যাবে পিতা আপনাকে প্রতিটি পরীক্ষার বিজয়ী করেছেন, যাতে আপনি কোনোরকম ভয় না পেয়ে এবং শাশ্বত জীবনের পূর্ণ নিশ্চয়তা পেয়ে মৃত্যুর সম্মুখীন হতে পারেন।

সত্য – যীশুই সত্য যা আপনার আত্মা জানতে আকাঙ্খিত, একজন যিনি, আপনাকে আপনার পাপ এবং ভয়ের হাত থেকে পরিত্রাণ করবেন।

জীবন – যীশু অনন্ত জীবন যেখানে একটি চিকিৎসা সংক্রান্ত মৃত্যু দিয়ে জীবনের শেষ করা যাবে না, যা অক্ষয় ভূষণ এবং অমরত্বের সাথে ভূষিত করা হবে।

শীঘ্রই মৃত্যুর ভয়ানক দেবদূত আপনার আত্মা দুর্ঘটনা, অসুখ, বা বৃদ্ধ বয়স দ্বারা দাবি করবে। আপনি চিরস্থায়ী মৃত্যুর মধ্যে হারিয়ে যাওয়ার পূর্বে, আপনার সবথেকে বর প্রয়োজন যীশু খ্রীষ্টের বিবেচনা করুন। তিনি বলেন, “আমিই পুনরুত্থান, আমিই জীবনঃ যে কেউ আমাকে বিশ্বাস করে, সে মরবার পর জীবন ফিরে পাবে” (যোহন11:25)। যীশু খ্রীষ্টের উপর বিশ্বাস রাখুন, আপনার পাপের জন্য অনুতপ্ত হন এবং আপনার পরিত্রাতা হিসেবে তাঁকে গ্রহণ করুন। মৃত্যু তোমার উপর কোন থাবা বসাতে পারবে না যদি ঈশ্বর আপনাকে পবিত্র আত্মা দিয়ে পূরণ করে দেন যা মৃত্যু থেকে খ্রীষ্ট বাড়িয়ে দেন।

এসো, শোনো এবং জানো। সত্য পাপ ও মৃত্যু থেকে আপনাকে মুক্ত করবে। যীশু খ্রীষ্ট, যিনি কেয়ামত এবং জীবন আপনাকে এঁর কাছে আসতে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে।

প্রার্থনাঃ “প্রিয় প্রভু যীশু, আমি অনুধাবন করেছি যে আমার কেবল্মাত্র একটিই জীবন এবং এটি শীঘ্রই গত হবে। আমি বুঝতে পেরেছি যে আমি একজন পাপী। আমার সমস্ত সম্পত্তি, আমার সকল বন্ধুও আমাকে বাঁচাতে পারবে না। আমি আপনার কাছে একটি ভাঙ্গা এবং অনুতপ্ত হৃদয় নিয়ে এসেছি। আমি আমার সমস্ত পাপের জন্য অনুতপ্ত। অনুগ্রহ করে আমাকে ক্ষমা করে দিন এবং শুচি করে দিন। আপনার সঙ্গে দেখা করার জন্য আমাকে প্রস্তুত করে দিন। আমেন।”

আরও বিস্তারিত তথ্যের জন্য অনুগ্রহ করে যোগাযোগ করুনঃ contact@sweethourofprayer.net

You can find equivalent English tract @

Live to die no live forever